Gabarol cr 82.5 এর কাজ কি দাম ও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া

Gabarol cr 82.5 mg tablet(গাবারোল সিআর ৮২.৫ মিলিগ্রাম) যা নিউরোপ্যাথি ব্যথার জন্য কাজ করে। এটির জেনেরিক নাম প্রিগাবালিন(pregabalin)

Gabarol cr 82.5 এর কাজ

নিউরোপ্যাথিক ব্যথা: গাবারোল ক্যাপসুলগুলি সাধারণত ডায়াবেটিক নিউরোপ্যাথি বা পোস্টহেরপেটিক নিউরালজিয়ার অবস্থার মতো নিউরোপ্যাথিক ব্যথা উপশম করার জন্য নির্ধারিত হয়।

ফাইব্রোমায়ালজিয়া চিকিৎসা: এটি ফাইব্রোমায়ালজিয়ার চিকিৎসার জন্য অনুমোদিত যা একটি দীর্ঘস্থায়ী ব্যাধি বা ব্যথা কমাতে সহায়তা করে

খিঁচুনি: প্রিগাবালিন মৃগী রোগে আক্রান্ত প্রাপ্তবয়স্কদের আংশিক খিঁচুনিগুলির জন্য একটি সহায়ক থেরাপি হিসাবে ব্যবহৃত হয় যা খিঁচুনি নিয়ন্ত্রণ এবং প্রতিরোধ করতে সহায়তা করে।

অ্যানজিওলাইটিক প্রভাব: ওষুধটি তার উদ্বেগজনিত (উদ্বেগ-হ্রাসকারী) বৈশিষ্ট্যের জন্য পরিচিত, যা এটিকে সাধারণ উদ্বেগজনিত ব্যাধি পরিচালনা করতে সক্ষম।

স্পাইনাল কর্ড ইনজুরিতে নিউরোপ্যাথিক ব্যথা: প্রিগাবালিন মেরুদন্ডের আঘাতের সাথে সম্পর্কিত নিউরোপ্যাথিক ব্যথা কমাতে সাহায্য করে।

দাদ ব্যথার উপশম: এটি দাদ (হারপিস জোস্টার) দ্বারা সৃষ্ট ব্যথার চিকিৎসার জন্য ব্যবহৃত হয়, যা স্নায়ু-সম্পর্কিত অস্বস্তি হ্রাসে সহায়তা করে।

মাইগ্রেনের আক্রমণ প্রতিরোধ: কিছু ক্ষেত্রে, প্রিগাবালিনকে এপিসোডের ফ্রিকোয়েন্সি এবং তীব্রতা কমাতে মাইগ্রেনের প্রতিরোধমূলক চিকিত্সা হিসাবে বিবেচনা করা যেতে পারে।


Gabarol cr 82.5 এর কাজ কি দাম ও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া




ফার্মাকোলজি

গাবারোল" হচ্ছে প্রিগাবালিন দ্বারা তৈরি যা ইনহিবিটরি নিউরোট্রান্সমিটার গামা-অ্যামিনোবিউটাইরিক এসিডের (GABA) একটি গাঠনিক ডেরিভেটিভ। এটি সরাসরি GABA, GABA অথবা বেনজোডায়াজেপিন রিসেপ্টরের সাথে যুক্ত হয় না। প্রিগাবালিন কেন্দ্রীয় স্নায়ুতন্ত্রের টিস্যুসমূহের Alpha-d Alpha-delta সাইটের (ভোল্টেজ-গেটেড ক্যালসিয়াম চ্যানেলের একটি অতিরিক্ত সাবইউনিট) সাথে উচ্চ সংযুক্তি সহকারে যুক্ত হয়।


Gabarol cr 82.5 খাওয়ার নিয়ম

গাবারোল সিআর মুখে গ্রহণ করা হয়ে থাকে। গাবারোল সিআর ট্যাবলেট রাতের খাবারের পরে সেবন করতে হয়। এটি সম্পূর্ণ সেবন করতে হবে এবং ভাঙা, চূর্ণ বা চিবিয়ে সেবন করা যাবে না।

যদি রোগীরা রাতের খাবারের পরে গাবারোল সিআর সেবন করতে ভুলে যায়, তাহলে তাদের অবশ্যই ঘুমানোর আগে হালকা খাবার খেয়ে গাবারোল সিআর সেবন করতে হবে।

যদি তারা ঘুমানোর আগে গাবারোল সিআর সেবন করতে ভুলে যায়, তাহলে তাদের সকালের খাবারের পর স্বাভাবিক মাত্রায় গাবারোল সিআর সেবন করতে হবে।

যদি তারা সকালের খাবারের পরে গাবারোল সিআর সেবন করতে ভুলে যায়, তাহলে তাদের রাতের খাবারের পরে স্বাভাবিক সময় গাবারোল সিআর সেবন করতে হবে।

গাবারোল ও গাবারোল সিআর উভয়ই দ্বারা চিকিৎসা বন্ধ করার সময় কমপক্ষে এক সপ্তাহ ধরে ওষুধের মাত্রা ক্রমান্বয়ে কমিয়ে তারপর বন্ধ করতে হবে।


উপযুক্ত বয়স্ক ডায়াবেটিক বা নিউরোপ্যাথিক ব্যথা এর ক্ষেত্রে

যে সকল রোগীর ক্রিয়েটিনিন ক্লিয়ারেন্স ৬০ মিলি/মিনিট বা এর চেয়ে বেশি, তাদের জন্য গাবারোল এর সর্বোচ্চ নির্দেশিত মাত্রা ১০০ মিগ্রা করে দিনে ৩ বার (মোট দৈনিক মাত্রা ৩০০ মিগ্রা)। ওষুধটি শুরু করার সময় ৫০ মিগ্রা করে দিনে ৩ বার (মোট দৈনিক মাত্রা ১৫০ মিগ্রা) দিতে হবে। ওষুধের কার্যকারিতা এবং ওষুধের প্রতি রোগীর সহনশীলতার উপর ভিত্তি করে এক সপ্তাহের মধ্যে মোট দৈনিক মাত্রা ৩০০ মিগ্রা পর্যন্ত বৃদ্ধি করা যেতে পারে।।

গাবারোল সিআর শুরুতে ১৬৫ মিগ্রা করে দিনে একবার সেবন করতে হবে এবং রোগীর প্রতিক্রিয়া এবং সহনশীলতার উপর ভিত্তি করে ১ সপ্তাহের মধ্যে প্রতিদিন একবার ৩৩০ মিগ্রা পর্যন্ত মাত্রা বৃদ্ধি করা যেতে পারে। এ ক্ষেত্রে গাবারোল সিআর এর সর্বোচ্চ মাত্রা হলো ৩৩০ মিগ্রা করে দিনে একবার।


প্রাপ্ত বয়স্কদের ক্ষেত্রে পোস্টহার্পেটিক নিউরালজিয়ার চিকিৎসায় (পিএইচএন)

যে সকল রোগীর ক্রিয়েটিনিন ক্লিয়ারেন্স ৬০ মিলি/মিনিট বা এর চেয়ে বেশি, তাদের জন্য গাবারোল এর নির্দেশিত মাত্রা ৭৫ মিগ্রা থেকে ১৫০ মিগ্রা করে দিনে ২ বার অথবা ৫০ মিগ্রা থেকে ১০০ মিগ্রা করে দিনে ৩ বার (মোট দৈনিক মাত্রা ১৫০ মিগ্রা থেকে ৩০০ মিগ্রা)। ওষুধটি শুরু করার সময় ৭৫ মিগ্রা করে দিনে ২ বার অথবা ৫০ মিগ্রা করে দিনে ৩ বার (মোট দৈনিক মাত্রা ১৫০ মিগ্রা) দিতে হবে।

ওষুধের কার্যকারিতা এবং ওষুধের প্রতি রোগীর সহনশীলতার উপর ভিত্তি করে এক সপ্তাহের মধ্যে মোট দৈনিক মাত্রা ৩০০ মিগ্রা পর্যন্ত বৃদ্ধি করা যেতে পারে। মোট দৈনিক মাত্রা ৩০০ মিগ্রা দ্বারা চিকিৎসার ২ থেকে ৪ সপ্তাহ পরেও যথেষ্ট ব্যথা নিরসন না হলে, যে সকল রোগী গাবারোল" এর অতিরিক্ত মাত্রার প্রতি সহনশীল তাদের ক্ষেত্রে ৩০০ মিগ্রা করে দিনে ২ বার অথবা ২০০ মিগ্রা করে দিনে ৩ বার (মোট দৈনিক মাত্রা ৬০০ মিগ্রা) দেওয়া যেতে পারে।

গাবারোল সিআর শুরুতে ১৬৫ মিগ্রা করে দিনে একবার সেবন করতে হবে এবং রোগীর প্রতিক্রিয়া এবং সহনশীলতার উপর ভিত্তি করে ১ সপ্তাহের মধ্যে প্রতিদিন একবার ৩৩০ মিগ্রা পর্যন্ত মাত্রা বৃদ্ধি করা যেতে পারে।

প্রতিদিন একবার করে ৩৩০ মিগ্রা মাত্রায় ২ থেকে ৪ সপ্তাহের চিকিৎসার পরও যে সকল রোগীদের পর্যাপ্ত ব্যথা উপশম হয় না, তাদের ক্ষেত্রে প্রতিদিন একবার করে ৬৬০ মিগ্রা পর্যন্ত গাবারোল সিআর এর সহনশীল মাত্রায় দেয়া যেতে পারে। মাত্রা-নির্ভর প্রতিনির্দেশনা এবং বিরূপ প্রতিক্রিয়ার কারণে চিকিৎসা বন্ধের উচ্চ হারের পরিপ্রেক্ষিতে, ৩৩০ মিগ্রা/প্রতিদিন উপরের মাত্রা শুধুমাত্র সেই রোগীদের জন্য সংরক্ষিত করা উচিত যাদের চলমান ব্যথা রয়েছে এবং প্রতিদিন ৩৩০ মিগ্রা মাত্রা যাদের ক্ষেত্রে সহনশীল ছিল। এ ক্ষেত্রে গাবারোল সিআর এর সর্বোচ্চ মাত্রা হলো ৬৬০ মিগ্রা করে দিনে একবার।

এক মাস ও এর বেশি বয়সীদের ক্ষেত্রে পার্সিয়াল অনসেট সিজারের সহায়ক চিকিৎসায়

প্রাপ্ত বয়স্ক (১৭ বছর ও এর বেশি বয়সী)

নির্ধারিত প্রারম্ভিক মাত্রা: মোট দৈনিক মাত্রা ১৫০ মিগ্রা দৈনিক মাত্রা।
দুই থেকে তিনটি মাত্রায় ভাগ করে সেবন করতে হবে।

যে সকল শিশুর ওজন ৩০ কেজি ব্য এর চেয়ে বেশি
দৈনিক ২.৫ মিলিগ্রাম/কেজি দিনে দুই থেকে তিন বার।

যে সকল শিশুর ওজন ৩০ কেজির কম
দৈনিক মাত্রা ৩.৫ মিলিগ্রাম/কেজি


প্রাপ্ত বয়স্কদের ক্ষেত্রে ফাইব্রোমায়েলজিয়ার চিকিৎসায়

Gabarol এর নির্ধারিত মোট দৈনিক মাত্রা ৩০০ মিগ্রাঃ থেকে ৪৫০ মিগ্রাঃ। এই ওষুধটি শুরু করার সময় ৭৫ মিগ্রাঃ করে দিনে দুই বার (মোট দৈনিক মাত্রা ১৫০ মিগ্রাঃ) প্রয়োগ করতে হবে। ওষুধের কার্যক্ষমতা এবং ওষুধের প্রতি রোগীর সহনশীলতার উপর ভিত্তি করে এক সপ্তাহের মধ্যে মাত্রা বৃদ্ধি করে ১৫০ করে দিনে ২ বার (মোট দৈনিক মাত্রা ৩০০ মিগ্রা) দেয়া যেতে পারে। মোট দৈনিক মাত্রা ৩০০ মিগ্রা করে দেয়ার পরেও যথেষ্ট উপকারিতা পাওয়া না গেলে ২২৫ মিগ্রা করে দিনে ২ বার (মোট দৈনিক মাত্রা ৪৫০ মিগ্রা) দেয়া যেতে পারে।


স্পাইনাল কর্ডের আঘাতের সাথে সংশ্লিষ্ট নিউরোপ্যাথিক ব্যথার চিকিৎসায় গাবারোল এর নির্দেশিত মোট দৈনিক মাত্রা ১৫০ মিগ্রা থেকে ৬০০ মিগ্রা। ওষুধটি শুরু করার সময় ৭৫ মিগ্রা করে দিনে ২ বার (মোট দৈনিক মাত্রা ১৫০ মিগ্রা) দিতে হবে। 
ওষুধের কার্যকারিতা এবং ওষুধের প্রতি রোগীর সহনশীলতার উপর ভিত্তি করে এক সপ্তাহের মধ্যে মাত্রা বৃদ্ধি করে ১৫০ করে দিনে ২ বার (মোট দৈনিক মাত্রা ৩০০ মিগ্রা) দেয়া যেতে পারে। ১৫০ মিগ্রা করে দিনে ২ বার মাত্রায় চিকিৎসার ২ থেকে ৩ সপ্তাহ পরেও যথেষ্ট ব্যথা নিরসন না হলে, যে সকল রোগী গাবারোল এর অতিরিক্ত মাত্রার প্রতি সহনশীল তাদের ক্ষেত্রে ৩০০ মিগ্রা করে দিনে ২ বার দেওয়া যেতে পারে।


হিমোডায়ালাইসিসের পর অতিরিক্ত মাত্রা (মিগ্রা)"

যে সকল রোগী দিনে একবার ২৫ মিগ্রা ওষুধ পায়ঃ ২৫ মিগ্রা বা ৫০ মিগ্রা এর একটি অতিরিক্ত মাত্রা দিতে হবে

যে সকল রোগী দিনে একবার ২৫-৫০ মিগ্রা ওষুধ পায়ঃ ৫০ মিগ্রা বা ৭৫ মিগ্রা এর একটি অতিরিক্ত মাত্রা দিতে হবে।

যে সকল রোগী দিনে একবার ৫০-৭৫ মিগ্রা ওষুধ পায়ঃ ৭৫ মিগ্রা বা ১০০ মিগ্রা এর একটি অতিরিক্ত মাত্রা দিতে হবে যে সকল রোগী দিনে একবার ৭৫ মিগ্রা ওষুধ পায়ঃ ১০০ মিগ্রা বা ১৫০ মিগ্রা এর একটি অতিরিক্ত মাত্রা দিতে হবে।


গাবারোল ক্যাপসুল থেকে গাবারোল সিআর এ পরিবর্তন
গাবারোল থেকে গাবারোল সিআর এ পরিবর্তন করার সময়, রোগীদের নির্দেশনা অনুযায়ী তাদের সকালের গাবারোল ডোজ নিতে হবে এবং রাতের খাবারের পরে গাবারোল সিআর সেবন শুরু করতে হবে।

Gabarol cr 82.5 mg price in Bangladesh

একটি গাবারোল সিআর ৮২.৫ ট্যাবলেট এর দাম ২৫ টাকা

এক পাতায় ১০ টি ট্যাবলেট থাকে যার দাম ২৫০ টাকা।

(Gabarol cr 82.5 er kaj ki তা জানতে আমাদের সম্পন্ন লেখাটি পড়ুন)


সাবধানতা ও সচেতনতা

এনজিওইডিমা (গলা, মাথা এবং ঘাড় ফুলে যাওয়া) এবং এর ফলে শ্বাস-প্রশ্বাসের জীবনঘাতী সমস্যা দেখা দিতে পারে ফলে জরুরী চিকিৎসার প্রয়োজন হতে পারে।

এ সকল ক্ষেত্রে সাথে সাথে প্রিগাবালিন দ্বারা চিকিৎসা বন্ধ করে দিতে হবে। এছাড়া অতিসংবেদনশীলতা (যেমন-র‍্যাশ, শ্বাসকষ্ট এবং শ্বাস-প্রশ্বাসে শব্দ) দেখা দিলেও সাথে সাথে প্রিগাবালিন দ্বারা চিকিৎসা বন্ধ করে দিতে হবে।

প্রিগাবালিনসহ অন্যান্য খিঁচুনিরোধী ওষুধসমূহ আত্মহত্যামূলক চিন্তাভাবনা এবং আচরণের ঝুঁকি বৃদ্ধি করে। সিএনএস ডিপ্রেসেন্টের সাথে প্রিগাবালিনের একত্রে ব্যবহারে অথবা আগে থেকে বিদ্যমান শ্বাস-প্রশ্বাসের সমস্যা থাকালে রেসপিরেটরি ডিপ্রেশন হতে পারে। 
এজন্য রোগীদেরকে পর্যবেক্ষণ করতে হবে এবং প্রয়োজন অনুযায়ী মাত্রা সমন্বয় করতে হবে। প্রিগাবালিন মাথা ঘোরা এবং নিদ্রালুতা সৃষ্টি করতে পারে যা রোগীর গাড়ি চালনা বা যন্ত্রাদি পরিচালনায় সমস্যা সৃষ্টি করতে পারে।

প্রিগাবালিন দ্বারা চিকিৎসা বন্ধের সময় কমপক্ষে এক সপ্তাহ ধরে ওষুধের মাত্রা ক্রমান্বয়ে কমিয়ে তারপর বন্ধ করতে হবে। প্রিগাবালিনের ব্যবহারে হাত পা ফুলে যেতে পারে।



Gabarol cr 82.5 side effects

প্রাপ্ত বয়স্কদের ক্ষেত্রে সাধারণ পার্শ্ব প্রতিক্রিয়াগুলো হলো মাথা ঘোরা, নিদ্রালুতা, শুষ্ক মুখগহ্বর, হাত পা ফুলে যাওয়া, ঝাপসা দৃষ্টি, ওজন বৃদ্ধি এবং অস্বাভাবিক চিন্তাভাবনা (প্রাথমিকভাবে মনোযোগে বিঘ্ন সৃষ্টি হওয়া)। শিশুদের ক্ষেত্রে পার্সিয়াল অনসেট সিজারের চিকিৎসার সাধারণ পার্শ্ব প্রতিক্রিয়াগুলো
হলো ওজন বৃদ্ধি এবং ক্ষুধা বৃদ্ধি।


গর্ভাবস্থায় ও স্তন্যদানকালে ব্যবহার

গর্ভাবস্থায়ঃ গর্ভাবস্থায় প্রিগাবালিন ব্যবহারের কোন পর্যাপ্ত ও সুনিয়ন্ত্রিত তথ্য নেই। ভ্রূণের সম্ভাব্য ঝুঁকির ব্যাপারে গর্ভবর্তী মহিলাদের সতর্ক করতে হবে। স্তন্যদানকালেঃ মাতৃদুগ্ধে সামান্য পরিমাণে প্রিগাবালিনের উপস্থিতি পাওয়া গেছে। টিউমার সৃষ্টির ঝুঁকি থাকায় প্রিগাবালিন দ্বারা। নির্দেশিত নয়। চিকিৎসা চলাকালীন সময় স্তন্যদান

শিশু ও কিশোরদের ক্ষেত্রে ব্যবহার

ডায়াবেটিক পেরিফেরাল নিউরোপ্যাথির সাথে সংশ্লিষ্ট নিউরোপ্যাথিক ব্যথা, পোস্টহার্পেটিক নিউরালজিয়া, স্পাইনাল কর্ডের আঘাতের সাথে সংশ্লিষ্ট নিউরোপ্যাথিক ব্যথা এবং ফাইব্রোমায়েলজিয়ার চিকিৎসায় শিশুদের ক্ষেত্রে প্রিগাবালিনের নিরাপদ ব্যবহার ও কার্যকারিতা প্রতিষ্ঠিত হয়নি। 
পার্সিয়াল অনসেট সিজারের সহায়ক চিকিৎসায় ১ মাস এর কম বয়সী শিশুদের ক্ষেত্রে প্রিগাবালিনের নিরাপদ ব্যবহার ও কার্যকারিতা প্রতিষ্ঠিত হয়নি। শিশু ও কিশোরদের ক্ষেত্রে প্রিগাবালিন এক্সটেন্ডেড রিলিজ ট্যাবলেট এর নিরাপদ ব্যবহার এবং কার্যকারিতা প্রতিষ্ঠিত হয়নি।

মাত্রাধিক্য

প্রিগাবালিন দ্বারা মাত্রাধিক্যের ক্ষেত্রে লক্ষণগুলো হলো সচেতনতার মাত্রা হ্রাস, বিষন্নতা/দুশ্চিন্তা, বিভ্রান্তি, উত্তেজনা এবং অস্থিরতা। খিচুনি এবং হার্ট ব্লকও পরিলক্ষিত হয়েছে। 
কোন নির্দিষ্ট প্রতিষেধক নাই। নির্দেশিত হলে শোষিত না হওয়া ওষুধ বমি করানোর মাধ্যমে বা গ্যাস্ট্রিক ল্যাভাজের মাধ্যমে বের করে দেয়া যেতে পারে; স্বাভাবিক শ্বাস-প্রশ্বাস রক্ষায় সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। গুরুত্বপূর্ণ লক্ষণসমূহ এবং রোগীর ক্লিনিক্যাল অবস্থা পর্যবেক্ষণের পাশাপাশি সহায়ক চিকিৎসা প্রদান করতে হবে।
Next Post Previous Post